ক্ষুদে কম্পিউটার প্রোগ্রামারদের স্বীকৃতি

    588
    0
    SHARE
    ভাল খবর , ভালখবর.কম , valokhobor .com, valo khobor
    ভাল খবর , ভালখবর.কম , valokhobor .com, valo khobor

    রোববার রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে চূড়ান্ত পর্বের সমাপনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শেষ হয়েছে ক্ষুদে কম্পিউটার প্রোগ্রামারদের ‘জাতীয় হাই স্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা-২০১৬’।

    দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজিত জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার প্রোগ্রামিংয়ে জুনিয়ার ক্যাটাগরি চ্যাম্পিয়ান হয়েছে রিজেন্ট এডুকেয়ারের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী রায়হান হাবিব। সিনিয়রে চ্যাম্পিয়ান হয়েছে চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুলের আসিফ জাওয়াদ।

    এছাড়া জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় কুইজে পর্বে জুনিয়ার ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ান হয়েছে রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলের মো. ফাহিম আবরার, সেকেন্ডারিতে পাবনা জিলা স্কুলের শাহরিয়ার রিজবী এবং হায়ার সেকেন্ডারিতে ঢাকা সরকারি বিজ্ঞান কলেজের সেজান আহমেদ।

    প্রতিযোগিতায় প্রোগ্রামিংয়ে প্রতিযোগিতায় জুনিয়ারে ১৬ জন এবং সিনিয়রে ২২ জনকে পুরস্কার দেওয়া হয়। কুইজের তিনটি ক্যাটাগরিতে মোট ২০ জন করে মোট ৬০ জনকে পুরস্কার দেওয়া হয়।

    চূড়ান্ত পর্বে আঞ্চলিক পর্যায়ের কুইজ প্রতিযোগিতার বিজয়ী ৯৬৮ জন এবং প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার বিজয়ী ৩১৩ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।

    অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, “বাংলাদেশের নতুন প্রজন্মের হাত ধরে রচিত হচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশের মহাকাব্য। শুধু হাইস্কুল নয় আগামীতে প্রাইমারি স্কুলগুলোতে এ প্রতিযোগিতা শুরু করা হবে।”

    এবারের প্রতিযোগীতায় দেশের ১৬টি অঞ্চলে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হলেও আগামী বছর থেকে ৩২টি অঞ্চলে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

    কম্পিউটার ল্যাব যে সব স্কুলে নেই সেখানে ল্যাব স্থাপনের আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন, “ভবিষ্যৎ ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে যারা সৈনিক- সেই ডিজিটাল সৈনিকদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান একটিও কম্পিউটার ল্যাববিহীন থাকবে না। প্রত্যেকটা স্কুলে শেখ রাসেল কম্পিউটার কাম ল্যাঙ্গয়েজ ল্যাব করে দেব।”

    লেখক ও শিক্ষাবিদ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল ক্ষুদে কম্পিউটার প্রোগ্রামারদের উদ্দেশে বলেন, নতুন পৃথিবীতে সম্পদ হচ্ছে জ্ঞান, ৪ কোটি ছেলে-মেয়ে স্কুলে আছে তারা যদি ভালোভাবে লেখাপড়া করে তাহলে বাংলাদেশকে আর ঠেকিয়ে রাখতে পারবে না।

    আইসিটি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ, রবির চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড পিপল অফিসার মতিউল ইসলাম নওশাদ বক্তব্য রাখেন।

    জাতীয় হাই স্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার আয়োজনে ছিল আইসিটি ডিভিশন, প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে রয়েছে রবি আজিয়াটা লিমিটেড, বাস্তবায়ন সহযোগিতায় বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক ।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here